গর্ভাবস্থায় যে কাজ করা একেবারেই করা ঠিক নয়

বেশ কিছু কাজ আছে যা আমরা অন্য সময় অনায়াসে করতে পারলেও গর্ভাবস্থায় তা করা মোটেও ঠিক নয়। কারণ সেই সময় এই কাজগুলি করলে গর্ভবতী মহিলাদের গর্ভস্থ সন্তানের ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা ৯০% থাকে। তাই দেখে নিন গর্ভাবস্থায় কী কী কাজ করবেন না।

#সাহায্য_বিডি’র  “গর্ভাবতী মহিলাদের সাহায্য” ডেস্ক: “গর্ভাবস্থায়” একজন নারির জীবনের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সময়। এই সময় সুস্থ থাকতে অনেক কিছু করার ওপরে বিধিনিষেধও রয়েছে। গর্ভবতী মহিলাদের ড্রাগ এবং অ্যালকোহল বা নেশা থেকে যেমন দূরে থাকতে বলা হয়, তেমনই আরও অনেক বিধিনিষেধ এই সময় মেনে চলার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয় গর্ভবতী নারীদের। যাদের গর্ভাবস্থায় বিশেষ কোনও জটিলতা থাকে না, তাঁদের এই নয় মাস স্বাভাবিক জীবন যাপন করারই পরামর্শ দেওয়া হয়। তবু কিছু কিছু কাজ আছে, এমন কিছু কাজ আনে যা কোনও গর্ভবতী মহিলারই করা উচিত নয়। দেখে নিন কোন কোন কাজ থেকে গর্ভবতী মহিলাদের দূরে থাকা উচিত।

কাঁচা মাছ এবং মাংস খাওয়া: গর্ভবতী মহিলাদের কাঁচা মাছ এবং মাংস খাওয়া একেবারেই উচিত নয়। আধাসিদ্ধ বা অল্প সিদ্ধ মাংস বা মাছ , কাঁচা ডিম অথবা আধসিদ্ধ ডিম খাওয়া থেকে থেকে এই সময় দূরে থাকুন। গর্ভবতী মহিলাদের স্মোকড সিফুড বা আনপাস্তুরাইজড ডেয়ারি আইটেম মোটেও খাওয়া উচিত নয় । এই সময় মহিলাদের ডায়েট চার্টে লিন প্রোটিন, স্বাস্থ্যকর ফ্যাট, অনেক ফল, শাক সবজি এবং জল রাখা উচিত।

ক্যাফেইন খাওয়া: ক্যাফেইন গর্ভবতী মহিলাদের মোটেও খাওয়া উচিত নয়। সেই কারণে গর্ভাবস্থায় কফি খেতে বারণ করা হয়ে থাকে। ক্যাফেইন রক্তচাপ বাড়িয়ে দিতে পারে। এছাড়া “ক্যাফেইন” খেলে হার্ট বেড়ে যেতে পারে এবং শরীরে জলের ঘাটতি দেখা যাওয়া সম্ভবনা থাকে। মনে রাখবেন চা এবং কফি ছাড়াও চকোলেট এবং সোডাতেও ক্যাফেইন থাকে।

ডাক্টারের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ খাওয়া: অনেক সময় আমরা টুকটাক সর্দি কাশি ও মাথা যন্ত্রনার জন্য নিজেরই দোকান থেকে ওষুধ কিনে খাই। গর্ভাবস্থায় এই কাজটি একদমই করা চলবে না। যে কোনও রকম শারীরিক সমস্যার জন্য গর্ভবতী মহিলাদের ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া বাধ্যতা মুলক। নিজে নিজে কোনও ওষুধ খাবেন না। এতে কিন্তু আপনার গর্ভস্থ সন্তানের বড় ক্ষতি সম্ভবনা থাকে।

গর্ভাবস্থায় মানসিক এবং শারীরিক স্ট্রেসের মধ্যে হটটাবে রিল্যাক্স করতে অবশ্যই ভালো লাগবে। কিন্তু এটা করা গর্ভবতী মহিলাদের পক্ষেও কোন ভাবেই করা উচিত নয়। সনা বাথ থেকেও দূরে থাকুন গর্ভবতীরা। শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে গেলে আপনার গর্ভস্থ সন্তানের শারীরিক সমস্যা দেখা দিতে পারে।

দাঁড়িয়ে বা বসে থাকা: খুব বেশিক্ষণ দাঁড়িয়ে বা বসে থাকা গর্ভবতী মহিলাদের জন্য উচিত নয়। এর ফলে পায়ের পাতা ফুলে যেতে পারে এবং শিরায় সমস্যা দেখা দিতে পারে। আপনার যদি অনেকক্ষণ বসে কাজ করতে হয়, তাহলে মাঝে মাঝে ব্রেক নিন এবং পা দুটো মাঝে মাঝে টুলের ওপরে তুলে আরাম করুন।

গর্ভাবস্থা: নিয়ে অনেক জায়গায় অনেক কিছু পড়তে পারবেন বা অনেকে আপনাকে অনেক কিছু বলবে। কিন্তু এই সব কথায় কান দিবেন না বা কিছুতে বিশ্বাস করবেন না। আপনার কিসে সমস্যা হচ্ছে, তা নিজে দেখে নিন। প্রয়োজনে ডাক্তারের সরনাপর্ন হন।

আমাদের পোস্ট গুলো সবার মাঝে শেয়ার করুন

 

আরও পড়ুনঃ

 

Leave a Comment